1. admin@sbarta24.com : Rahat : Anwar Babul
বিএনপির এত ত্যাগ বৃথা যেতে পারে না: ফখরুল - Home
সোমবার, ২১ জুন ২০২১, ০৬:৫৩ অপরাহ্ন
এই মুহূর্তে
Welcome To Our Website... করোনা মুক্তিতে দেশ ও জাতির জন্য ঈদ জামাতে বিশেষ দোয়া, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালবৈশাখী ঝড়ের আভাস। টিকা নিয়ে নতুন ঘোষণা রাশিয়ার, এক ডোজই রুখে দেবে করোনার সব ভ্যারিয়েন্ট....

বিএনপির এত ত্যাগ বৃথা যেতে পারে না: ফখরুল

ডেস্ক রিপোর্টঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৮ জুন, ২০২১
  • ৯৯ বার পঠিত

দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতে বিএনপি নেতাকর্মীরা অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন বলে দাবি করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এত ত্যাগ বৃথা যেতে পারে না, তাদের জয় একদিন হবেই বলে মনে করেন তিনি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে জিয়াউর রহমানের ৪০তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আজকে ৪০ বছর পরে আমরা প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানকে স্মরণ করছি। প্রয়োজনটা কেন? প্রয়োজন হলো এজন্য যে, এই মানুষটাকে বারবারই স্মরণ করতে হবে। তার যে কথা আমরা বলি, তিনি আমাদের নেতা, তিনি আমাদের আদর্শ, তিনি আমাদের পথ দেখিয়েছেন। কিন্তু সেই পথটায় আমরা এখন চলছি না।

এই পৃথিবী এখন একটি নষ্ট পৃথিবী দাবি করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, এই পৃথিবীতে এখন কোনো আদর্শ নেই, কোনো রকমের সততা নেই, কোনো মূল্যবোধ নেই। সময়টাকে এজন্য নষ্ট সময় বলা হয়। এখন যারা রাষ্ট্রপ্রধান হন, বেশিরভাগই ক্ষমতায় টিকে থাকতে চান। এটা শুধু আমাদের দেশে না, সব দেশে। সেজন্য আমরা বলি গণতান্ত্রিক দেশে যদি পরিবর্তন আসে সেই পরিবর্তনের মধ্যেও চেষ্টা করে কীভাবে টিকে থাকবে। গণতন্ত্রের সবচেয়ে বড় প্রবক্তা আমেরিকা, সেখানে কিছুদিন আগে দেখলেন নির্বাচন হলো, ট্রাম্প কি চেষ্টাটাই না করলেন টিকে থাকার জন্য। যত রকম চেষ্টা আছে, নির্বাচন কমিশনকে নিয়ন্ত্রণ করে, একদম শেষে ক্যাপিটল হাউসে মানুষ ঢুকিয়ে দিল। শত শত হাজার হাজার মানুষ, যা আমেরিকার ইতিহাসে নেই। আসলে এখন আর নীতিকথা বলে কিছু নেই। রাজনীতিতে নীতিকথা নির্বাসিত হয়ে গেছে।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি মুনসী বজলুল বাসিত আনজুর সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম নকীর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আব্দুস সালাম, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব প্রমুখ। সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি।

আওয়ামী লীগ ইতিহাস নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করছে মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘শেখ মুজিব রহমানকে আওয়ামী লীগই ছোট করছে। আওয়ামী লীগ যেখানে ব্যর্থ বিএনপি সেখানে সফল।’

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘বর্তমান তথ্যমন্ত্রী সব মিথ্যে বলেন। তিনি সম্ভবত হিটলারের তথ্যমন্ত্রী ছিলেন।’

ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগের এসব নেতাকর্মীরা বারবার মিথ্যে বলতে বলতে একবার সত্য বলে ফেলে। তাদের মুখ দিয়ে সত্যটা বেরিয়ে আসে।’

মির্জা ফখরুল নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, ‘আপনারা আশাহত না হয়ে দাবি আদায়ের জন্য আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যান, ইনশাল্লাহ জয় আমাদের আসবে।’

ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যেদিন থেকে ক্ষমতায় এসেছে তারা সেদিন থেকে জোর করে ক্ষমতা দখল করেছে। আমরা শুরু থেকে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছি।’

ফখরুল বলেন, ‘আমাদের অনেকের বয়স এখন সত্তরের উপরে, অনেক সময় ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও আমাদের আন্দোলন করা সম্ভব হয় না। আজীবন দেশের ইতিহাসে নব্বইয়ের গণঅভ্যুত্থান আন্দোলনের যুবকরা বিশেষ ভূমিকা রাখে। আর সমস্ত অন্যায় ও আওয়ামীবিরোধী আন্দোলন যুবকদের শুরু করতে হবে। আন্দোলন শুরু হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে, এরপর সে আন্দোলন সারাদেশে ছড়িয়ে যায়।’

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘জেগে উঠতে হবে, জাগাতে হবে। যুবকরা কোথায়? অন্যায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি সবসময় সোচ্চার আছে। এখনও জেল জুলুম ও নির্যাতিত হচ্ছে। আমার নামেও অনেক মামলা রয়েছে, হাজিরা দিয়ে যাচ্ছি।’

ফখরুল বলেন, ‘আওয়ামী লীগ জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে সম্পূর্ণ মিথ্যা প্রচার করে আসছে। স্বাধীনতার ঘোষক হিসেবে জিয়াকে আওয়ামী লীগ খলনায়ক বানানোর চেষ্টা করছে। আমি বলতে চাই, মেজর জিয়াউর রহমান এ দেশের রাষ্ট্রনায়ক। তিনি যদি সেদিন স্বাধীনতার হাল না ধরতেন তাহলে এ দেশে কখনো স্বাধীন হতো না। কাজেই জিয়াউর রহমানের সমালোচনা থেকে আওয়ামী লীগের দূরে থাকা উচিত।’

এ সময় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আওয়ামী লীগের সমালোচনা করে বলেন, ‘৭২ সালের সংবিধানকে আজ কেটে-ছিঁড়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারব্যবস্থা ধ্বংস করছে।’ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা পুনরায় বহাল করার দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ‘বর্তমান আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিদেশে টাকা প্রচার ঠেকানো যাচ্ছে না। তারা বিভিন্নভাবে দেশকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে।’

ফখরুল বলেন, ‘শান্তিপূর্ণভাবে ক্ষমতা হস্তান্তরের পথ না করলে পরিণতি ভালো হবে না।’ পদ-পদবির জন্য নেতাকর্মীদের রাজনীতি না করার আহ্বান জানান মির্জা ফখরুল।

আরও খবর

Visitors online – 3874
users – 4
guests – 3753
bots – 117
The maximum number of visits was – 2021-06-15
all visitors – 6342
users – 17
guests – 5630
bots – 695