1. admin@sbarta24.com : Rahat : Anwar Babul
বাংলাদেশের বন্ধু সাংবাদিক সায়মন ড্রিং আর নেই - Home
শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:৫১ পূর্বাহ্ন
এই মুহূর্তে
Welcome To Our Website... করোনা মুক্তিতে দেশ ও জাতির জন্য ঈদ জামাতে বিশেষ দোয়া, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালবৈশাখী ঝড়ের আভাস। টিকা নিয়ে নতুন ঘোষণা রাশিয়ার, এক ডোজই রুখে দেবে করোনার সব ভ্যারিয়েন্ট....

বাংলাদেশের বন্ধু সাংবাদিক সায়মন ড্রিং আর নেই

ডেস্ক রিপোর্টঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২০ জুলাই, ২০২১
  • ৭১ বার পঠিত

ব্রিটিশ সাংবাদিক সাইমন ড্রিং আর নেই। গত শুক্রবার অসুস্থ সায়মন ড্রিং তলপেটে সার্জারি চলাকালে লন্ডনে মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর।

সাইমন ড্রিং এর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তার বাংলাদেশি বন্ধু সাংবাদিক তুষার আব্দুল্লাহ।

একুশে টিভিতে সাইমন ড্রিং এর সহকর্মী হিসেবে কাজ করেছেন তুষার আব্দুল্লাহ। মঙ্গলবার (২০ জুলাই) দুপুরে তুষার আব্দুল্লাহ বলেন, বাংলাদেশে টিভি মিডিয়ার সম্প্রসারণে আইকনিক ক্যারেক্টর ছিলেন সাইমন ড্রিং। শুধু তাই নয়, কলম আর ক্যামেরা হাতে নিজের জীবন বাজি রেখে মুক্তিযুদ্ধে নিরীহ বাংলাদেশিদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন সাংবাদিক সায়মন ড্রিং।

সাইমন ড্রিং বাংলাদেশে ২০০০ সালে এসেছিলেন এ দেশের প্রথম বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একুশে টিভি গড়ে তোলার প্রধান কারিগর হিসেবে। কিন্তু ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর একুশে টিভি বন্ধ করে দেয়। ২০০২ সালের অক্টোবরে সরকার সাইমন ড্রিংয়ের ভিসা ও ওয়ার্ক পারমিট বাতিল করে তাঁকে অবিলম্বে বাংলাদেশ ত্যাগের আদেশ দিলে তিনি চলে যান।

সাইমন ড্রিংয়ের জন্ম ইংল্যান্ডে, ১৯৪৫ সালে। তিনি সংবাদপত্র ও টেলিভিশনের সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেছেন ১৮ বছর বয়স থেকে। দেখেছেন ২২টি যুদ্ধ, অভ্যুত্থান ও বিপ্লব।

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে বাঙালির পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন নানা দেশের অজস্র সহমর্মী মানুষ। তাদের কেউ কেউ ভূমিকা রেখেছিলেন রাইফেল কাঁধে যুদ্ধের মাঠে, শরণার্থী শিবিরে, কেউবা যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন বিভিন্নভাবে প্রতিবাদ ও জনমত গঠন করে। কঠিন সেই সময়ে তাঁরা যে ভূমিকা রেখেছেন নিঃসন্দেহে তা অবিস্মরণীয়। তেমনি একজন ‘সাহসী যোদ্ধা’ ছিলেন সাইমন ড্রিং।

আরও খবর

Visitors online – 315
users – 0
guests – 292
bots – 23
The maximum number of visits was – 2021-07-12
all visitors – 9805
users – 12
guests – 9540
bots – 253