বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন

দেশে জনপ্রিয়তা বাড়ছে ‘বিপ’ অ্যাপের

অনলাইন ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ১৬ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৭৬ বার পঠিত

প্রযুক্তি জগতে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে তুরস্কে তৈরি ভিডিও কলিং ও মেসেজিং অ্যাপ ‘বিপ’। হোয়াটসঅ্যাপের গোপনীয়তা নীতির সমালোচনার মধ্যেই বিকল্প হিসেবে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে অ্যাপটি। তবে বাংলাদেশে এই অ্যাপের জনপ্রিয়তা ছাড়িয়ে গেছে অন্য সব অ্যাপকে।

বাংলাদেশে বেশিরভাগ অ্যাপ সাধারণত ডাউনলোড করা হয় গুগল প্লে স্টোর থেকে। আর গুগল প্লে স্টোর থেকে বাংলাদেশের ব্যবহারকারীদের অ্যাপ ডাউনলোডের র‍্যাংকিংয়ের ফলাফল অবাক করার মতো। বিবিসির প্রতিবেদনে জানা গেছে, মাত্র একদিনে র‌্যাংকিংয়ে ‘বিপ’ ৯২ থেকে এক লাফে পৌঁছে গেছে শীর্ষস্থানে। বিপ পেছনে ফেলেছে ইমো, হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক লাইট- এর মতো বহুল ব্যবহৃত অ্যাপগুলোকে।

‘বিপ’ অ্যাপের  হঠাৎ এই জনপ্রিয়তার কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে যে তারা ব্যবহারকারীদের কিছু তথ্য তাদেরই সহযোগী কোম্পানি ফেসবুকের সঙ্গে শেয়ার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর ফলে হোয়াটসঅ্যাপে আদান-প্রদান করা বার্তা এবং তথ্যের গোপনীয়তা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে ব্যবহারকারীদের মনে। এর ফলে হোয়াটসঅ্যাপের বিকল্প হিসেবে মানুষ ‘বিপ’র দিকে ঝুঁকছে।

বিপ অ্যাপ কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে প্রচারিত বিজ্ঞাপনে গোপনীয়তার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে। তারা জানিয়েছে, এটি এন্ড-টু-এন্ড এনক্রিপটেড, অর্থাৎ ভয়েস কল এবং মেসেজ আদান-প্রদান গোপন থাকবে এবং এটি কেউ হ্যাক করতে পারবে না। এই অ্যাপ অনেকটা হোয়াটসঅ্যাপ-সহ অন্যান্য ভিডিও কলিং ও মেসেজিং অ্যাপের মতো করেই কাজ করে।

এছাড়াও অ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এখানে সিক্রেট চ্যাট করার ব্যবস্থাও রয়েছে। কোনো ব্যবহারকারী যদি নির্দিষ্ট সময় পরে স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজ মুছে দিতে চান, তাহলে সে অনুযায়ী সময় সেট করা যাবে।

জানা যায়, তুরস্কের মোবাইল ফোন কোম্পানি টার্কসেল বিপ অ্যাপ উদ্ভাবন করে ২০১৩ সালে। বিশ্বের ১৯২টি দেশে এই অ্যাপ ব্যবহার করা হচ্ছে এবং ব্যবহারকারীদের বেশিরভাগই ছিল ইউরোপের বিভিন্ন দেশে। আইওএস চালিত আইফোন এবং অ্যান্ড্রয়েড চালিত মোবাইল ফোনে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা যায়। এছাড়া ডেস্কটপেও ব্যবহার করা যায় এই অ্যাপ।

তুরস্কের পত্রিকা ডেইলি সাবাহ জানিয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপ প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করার কথা ঘোষণা করার পর থেকে প্রতিদিন ২০ লাখ বার ডাউনলোড হয়েছে বিপ। এখন পর্যন্ত সর্বমোট এই অ্যাপ ডাউনলোড হয়েছে ছয় কোটি বার।

আরও খবর
© sbarta24.com সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Jp Host BD
jphostbd-2281
x