1. admin@sbarta24.com : Rahat : M Islam Rahat
খুন হওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করে ফেসবুকে স্টাটাস কাদের মির্জার - Home
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন
এই মুহূর্তে
Welcome To Our Website... দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে কালবৈশাখী ঝড়ের আভাস। টিকা নিয়ে নতুন ঘোষণা রাশিয়ার, এক ডোজই রুখে দেবে করোনার সব ভ্যারিয়েন্ট....

খুন হওয়ার শঙ্কা প্রকাশ করে ফেসবুকে স্টাটাস কাদের মির্জার

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১
  • ৫৭ বার পঠিত

খুন হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন মির্জা।
সোমবার (৩ মে) ২টা ৩৩ মিনিটের দিকে নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দেন কাদের মির্জা। ওই স্ট্যাটাসে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করে লিখেন, নোয়াখালী ৪ আসনের এমপি ও জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী তাকে (কাদের মির্জা) ও তার সন্তানকে আগামী ৬ তারিখের মধ্যে হত্যা করবে।

তিনি লিখেছেন, একরামুল করিম চৌধুরী দুবাই অবস্থান করে আমি ও আমার সন্তানকে আগামী ৬ তারিখের মধ্যে হত্যা করবে। ইতিমধ্যে এই হত্যার মিশন বাস্তবায়ন করার জন্য ৩টি একে ৪৭ ক্রয় করা হয়েছে। আমি সত্যের পথে আছি থাকবো, সাহস করে সত্য কথা বলে যাবো। আল্লাহ ছাড়া আমি কাউকে ভয় করি না, আমি অন্যায়ের কাছে মাথা নত করবো না। আবদুল কাদের মির্জা, মেয়র, বসুরহাট পৌরসভা।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, চট্রগ্রামের সাবেক মেয়র আজম নাছিরের মাধ্যমে একরামুল করিম চৌধুরী ৩টি একে ৪৭ সেভেনের অর্ডার দেন। পরে ফেনীর মেয়র স্বপন মিয়াজীর মাধ্যমে অস্ত্র গুলো বসুরহাটের ৫জন নেতার কাছে পৌঁছানো হয় তাকে এবং তার ছেলেকে হত্যার জন্য।

এ বিষয়ে উপজেলা আ.লীগ নেতা ও সেতুমন্ত্রীর ভাগ্নে ফখরুল ইসলাম রাহাত বলেন, কাদের মির্জার এমন অভিযোগ গুলো হচ্ছে পূর্ব পরিকল্পিত মিথ্যাচার। তার অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন। কাদের মির্জা পৌরসভার গাড়িতে সন্ত্রাসী নিয়ে মহড়া দেয়। সে নিজে পৌর ভবনে অস্ত্রধারীদেরকে সাথে নিয়ে দীর্ঘ এক মাসের ওপরে পৌরসভায় বসবাস করছে। সে আবারও কোন হত্যাকান্ড ঘটানের পায়তারা চালাচ্ছে। বরং তারই অংশ হিসেবে আগে থেকেই কৌশলে এসব মিথ্যা অভিযোগ করছেন।

কাদের মির্জার সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার দেওয়া স্ট্যাটাসের সত্যতা আছে বলে দাবি করেন।

আরও খবর

Visitors online – 288
users – 0
guests – 278
bots – 10
The maximum number of visits was – 2021-05-10
all visitors – 3314
users – 11
guests – 3169
bots – 134